Home | Add to Favorites | Feedback | Sitemap | Webmail
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

Click to see what our sttisfied customer who took our services.

You can also share your ideas and satisfactions to us...

 
 
 

MOONSTONE: চন্দ্রকান্তমনি

The Stone Of Emotional Balance - “আবেগের ভারসাম্যের পাথর” ।
Metaphysical healing properties বা বিমূর্ত নিরাময় গুণাবলী: চন্দ্রকান্তমনি আবেগ প্রশমিত ও ভারসাম্য রাখতে সহায়তা করে। এ রত্ন আপনার আবেগের নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে আবেগকে দমিয়ে রাখা বা প্রকাশ করার পরিবর্তে আপনার ইচ্ছার অধীনে নিয়ে আসার মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে। চন্দ্রকান্ত মহান মাতৃদেবীকে উপস্থাপন করে। তার শক্তি রয়েছে তার ভদ্রতার মধ্যে এবং তার অভিজ্ঞতা ও প্রক্রিয়ার মধ্যে এবং এ শক্তি তার অনুভবকে নিরপেক্ষ করে। অভিলাষ,অন্তর্জ্ঞান ও ভারসাম্যের পাথর। আমাদের অমায়িক মেয়েলি দিকের মাধ্যমে সবাইকে আরো স্বস্তিপূর্ণ হতে সহায়তা করে। আপনার প্রয়োজনীয় সবকিছু আনয়ন করে।
কিছু লোক মনে করে যে, চন্দ্রকান্ত সুস্পষ্টভাবে একটি মেয়েলি পাথর, কারণ এটা নারীদের মাসিক চক্রের সাথে সম্পর্কিত। কিন্তু প্রতিপালন, অমায়িক তত্ত্বাধীন ও স্বার্থহীন মানবিকতার সেবা সাধারণভাবে একটি মহিলাদের গুণ নয়। মুনস্টোন নারী ও পুরুষ উভয়ের ক্ষেত্রেই ঐসব অনুভবকে প্রতিবন্ধকতা থেকে মুক্ত করতে পারে, যারা সচেতনভাবে তাদের ব্যক্তিগত ও আভ্যন্তরীণ পর্যায়ের অনুভবকে স্বীকার করতে ভয় পায়। মস অ্যাজাইট, ম্যালাকাইট ও সবুজ পাথরের মতো চন্দ্রকান্তমণি উর্বরতা ও উদ্যান পালনের সাথে সম্পর্কিত। এই চারটিকেই প্রকৃতি, পানি, চক্র, প্রতিপালন ও উর্বরকরণের প্রতি আরোপ করা হয়েছে। সন্তান জন্ম, উর্বরতা, প্রবৃদ্ধি ও রজ:স্রাবচক্রনিয়ন্ত্রণেরজন্যমুনষ্টোনপরিধানকরুন।
ডাক্তার, নার্স, টেকনিশিয়ান ও অন্যান্য স্বাস্থ্য সেবা কর্মীদের জন্য একটি মহৎ পাথর, যারা মাঝে মাঝে অনুভব করে যে, একাগ্রতা ও সমবেদনার ফলে উদ্ভুত নম্রতার বিনিময়ে অধিক ফলপ্রসুভাবে কাজ করার ফলে তারা যা অনুভব করে তার অধিকাংশই তাদেরকে দমিয়ে রাখতে হবে। এটা আবেগ ও অনুভবকে মানুষের ভোগান্তির ক্ষেত্রে আরো মজবুত না করেই একজনের নিয়ন্ত্রণের অধীনে নিয়ে আসে। চন্দ্রকান্তমণি নম্রতা হারানো ছাড়াই হৃদয় ও মনের মাঝে একটি ভারসাম্য অর্জন করতে সহায়তা করবে,এমনকিএটাআপনাকেফলপ্রসুভাবেকাজকরারজন্যওসুযোগদিবে।
চন্দ্রকান্তমণি অনেক নির্বাহীর সাহায্যে আসতে পারে, যারা আবেগবশত তাদের অনুভব ত্যাগ করেছে যা দক্ষতার সাথে কাজ করার ক্ষেত্রে সহায়তা করে। শুধু এটা অনুসন্ধান করার জন্য যে, তার কর্মচারীরা কাজ করার ক্ষেত্রে কঠিন এবং তার নির্লিপ্ততার কারণে তাদের আনুগত্য খুবই কম। নিজেকে ব্যবস্থাপনার আবেগপ্রবণ অবয়বের সংস্পর্শে আসার সুযোগ দেয়ার মাধ্যমে শৃঙ্খলা বজায় রাখার সময় আপনি একটি তদারকির পরিবেশ পুন:প্রতিষ্ঠা করতে পারেন। যেসব অসুখী কর্মচারীরা আপনাকে দূরবর্তী ও নির্লিপ্ত মনে করে তারা ফলপ্রসু কর্মচারী নয়। সকল দিক থেকে সিদ্ধান্ত বিবেচনায় সময় নেয়ার কথা স্মরণ করিয়ে দেয়ার জন্য এক টুকরো চন্দ্রকান্তমণি আপনার পকেটে রাখুন।
প্রাচ্য সংস্কৃতিতে চন্দ্রকান্তমণি ভালবাসার জন্য প্রাধান্য দেয়া হত। তাদের ধারণা যে, একটি চন্দ্রকান্তমণি পরিধান বা বহন আপনার জীবনে একটি নতুন ভালোবাসা আনয়ন করবে। তারা আরো বিশ্বাস করতো যে, ঝগড়ার পরে তাদের হৃদপিন্ডের উপর এক টুকরো চন্দ্রকান্তমণি রেখে একে অপরের সাথে পাথর বিনিময় করলে তা আপনাকে একত্রে আবার পূর্বের অবস্থানে নিয়ে যাবে। উদ্যান পালনের ক্ষেত্রে গাছ লাগানো, আগাছা পরিস্কার অথবা পানি ছিটানোর সময় পাথর পরিধান করুন এবং প্রত্যক্ষবৎ আপনার বাগানকে স্মরণ করুন যেতা উর্বরতার সাথে মুকুলিত হচ্ছে। যেভাবে আপনি কাজ করেন। আপনার বাগানে একটি ছোট ঘন্টা ও এ পাথরগুলো মুলিয়ে দিন অথবা মাটিতে কিছু শিলাখন্ড পুতে দিন।
জোডিয়াকে বা জোতিষশাস্ত্রে ব্যবহৃত অবস্থান নির্দেশক মানচিত্র এর ভ্রমণের পদ্ধতির কারণে চন্দ্রকান্তমণিকে ভ্রমণের সময় একটি সুরক্ষা মূলক পাথর বিবেচনা করা হয়, বিশেষ করে রাত্রি বেলায় অথবা পানিতে। সাতারু, নাবিক ও অবকাশ যাপনরত ক্রুদের জন্য এটি একটি উপযুক্ত পাথর। যারা ট্যারিট কার্ড, রুন, স্ফটিক বল, মেডিসিন কার্ড অথবা অন্য যে কোন ধরনের ডিজাইনিং টুল নিয়ে কাজ করেন তারা অন্তর্জ্ঞান ও উপলব্ধি উন্নত করার জন্য একটি মুনষ্টোন পাথর সাথে রাখবেন। চন্দ্রকান্তমণি সুখ, অনুগ্রহ, সৌভাগ্য, আসা, আধ্যাত্মিক অন্তর্দৃষ্টি, সহজ সন্তান জন্মদান, পানি পথে নিরাপদ ভ্রমণ, পরিবর্তন, প্রাচুর্যতা ও প্রাচীন প্রজ্ঞতার নতুন সূচনা ও সমন্বয়কে পোষণ করে। বিশেষ করে পানি চিহ্নের জন্য। মাতৃসুলভ ভালবাসা সমর্থন ও উৎসাহের জন্য।
  • এ পাথর আমাদেরকে অনুভবের সংস্পর্শে নিয়ে আসে এবং এটা চাঁদের সাথে সম্পর্কিত।
• নারী ও প্রকৃতির জন্য চন্দ্রকান্তমণি সুরক্ষা মূলক এবং এটা চন্দ্রদেবীর জন্য পবিত্র।
• নতুন সূচনা, পূনর্জন্ম
• ব্যাথা ও অসুস্থ্তাকে শোষণ করে।
বর্ণ : সাধারণত নীলাভ অথবা হলুদাভ বর্ণের ছোপের সাথে দুধালো সাদা বর্ণ। সাদা, গোলাপি, হলদে, কোমল আভার সাথে সাথে আলোকভেদ্য।
শারিরীক : স্ত্রীলোকদের হরমোন/রজ:স্রাবের ভারসাম্যহীনতা, লিম্ফ, কলা ও অঙ্গসমূহ পুনরুৎপাদন করে। প্রজনন তন্ত্রের নিরাময় করে।
ক্যারিয়ার : হেলথ কেয়ার- ডাক্তার, নার্স, টেকনিশিয়ান ও অন্যান্য স্বাস্থ্য সেবা কর্মী।
অন্যান্য – নাবিক, উপকূলরক্ষী
কর্মকান্ড- উদ্যানকরণ, ভ্যাকেশন, সাতার ও পানির খেলা।
চন্দ্রকান্তমনি চাঁদের মত স্নিগ্ধ। উপরিভাগ উজ্জ্বল, মসৃণ। এই রত্নটি স্বচ্ছ থেকে অস্বচ্ছ হয়ে থাকে। এর উৎপত্তি আগ্নেয় বা রূপান্তরিত শিলা থেকে। এই রত্নটিকে আরবীতে হাজরুল কামার, ইংরেজীতে Moon stone ও বাংলায় চন্দ্রকান্তমণি বলে। সাদা ঘোলাটে, স্বচ্ছকাঁচের মত হরিদ্রাভ সাদা, রক্তাভ সাদা আভাযুক্ত হয়ে থাকে।
উপাদান (Chemical Composition): পটাসিয়াম এ্যালুমিনিয়াম সিলিকেট।
কাঠিন্যতা (Hardness) : ৬ – ৬.৫
আপেক্ষিক গুরুত্ব (Specific Gravity) : ২.৫৫-২.৭৬
প্রতিসরণাংক (Refractive Index) : ১.৫১৮-১.৫২৬
বিচ্ছুরণ (Dispersion) : ০.০১২
উপকারিতা: এই রত্নটি চন্দ্র গ্রহের উপরত্ন হিসাবে ব্যবহত হয়। মুক্তার বিকল্প হিসাবে এটির ব্যবহার। উদরাময়, জ্বর, যক্ষ্মা, মানসিক চাঞ্চল্য, মাথাব্যথাতে খুবই উপকারী। বালক-বালিকাদের দৈহিক পুষ্টি সাধনে বিশেষ ফলদায়ক।
  (ক) সাদা ঘোলাটে রং-এর চন্দ্রকান্তমণি চন্দ্রের জন্য ভাল কাজ দেয়।
(খ) স্বচ্ছ কাঁচের মত রং –এর চন্দ্রকান্তমণি চন্দ্র ও শুক্রের কাজ করে।
(গ) হরিদ্রাভ সাদা রং-এর চন্দ্রকান্তমণি চন্দ্র ও বৃহস্পতির কাজ দেয়।
(ঘ) রক্তাভ আভাযুক্ত চন্দ্রকান্তমণি রবির ও চন্দ্রের কাজ দেয়।
প্রাপ্তিস্হান: শ্রীলংকা ও বার্মায় পাওয়া যায় সবচেয়ে ঈষদ স্বচ্ছ নীলচে চন্দ্রিম আভাযুক্ত দামী চন্দ্রকান্তমনি এবং মাদাগাস্কায় ও তানজানিয়াতেও উন্নতমানের চন্দ্রকান্তমনি পাওয়া যায়। এছাড়া পাওয়া যায় ভারতের পশ্চিম অংশে, মেক্সিকো, আফগানিস্থান প্রভৃতি স্থানে।
সঠিক রাসায়নিক বিশ্লেষণ, শুভ তিথীযুক্ত দিন ব্যতীত এবং বিশুদ্ধ সিদ্ধান্ত মতে শোধন না করে যে কোন রত্ন পাথর ধারণ করা অনুচিত। এতে করে শুভ ফল পাবেন না । শোধন প্রক্রিয়া সময় সাপেক্ষ তথাকথিত প্রচলিত ভ্রান্ত সাধারণ নিয়মে দুধ, মধু, গোলাপজল, জাফরান , আতর, জম জম কূপের পানি, নদীর পানি কিংবা গঙ্গা জল ইত্যাদি দ্রব্য / বস্তু দ্বারা শোধন কখনও করা হয় না বা করার বিধান শাস্ত্রে নেই ।

আমাদের প্রতিষ্ঠান থেকে ক্রয়কৃত রত্ন পাথর আমরা বিশুদ্ধ সিদ্ধান্ত মতে শোধন করে দিয়ে থাকি বিনিময়ে কোন অর্থ গ্রহণ করি না । আমাদের, বিশুদ্ধ সিদ্ধান্ত মতে শোধন করা রত্ন পাথর ধারণ করার পর দ্রুত ফল প্রদান করতে সক্ষম।
“ সুমঙ্গল ” - এ পাওয়া যায় ।
 
 

  • Pearl
  • Blue Sapphire
  • Yellow Sapphire
  • Ruby
  • Diamond
 
 
 
 

Error. Page cannot be displayed. Please contact your service provider for more details. (14)